পৃথিবীর সেরা কয়েকটি বহুতল ভবন

Architecture & SculptureLeave a Comment on পৃথিবীর সেরা কয়েকটি বহুতল ভবন

পৃথিবীর সেরা কয়েকটি বহুতল ভবন

109 Views


যুগের সাথে পাল্লা দিয়ে প্রতিদিন বাড়ছে প্রযুক্তির অদৃশ্য হাত । প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তৈরী করা হচ্ছে তাক লাগানো অনেক কিছু । এক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই দালানকোঠার নির্মাণও । বড় বড় বিভিন্ন দালানকোঠা নির্মাণে বর্তমানে ব্যবহার করা হচ্ছে বিভিন্ন ধরণের প্রযুক্তি । আমাদের আজকের আলোচনার মুল বিষয় হলো পৃথিবীর সেরা কয়েকটি সুউচ্চ বহুতলভবন ।



তালিকায় দশম স্থানে থাকা “Shanghai World Financial Center ” এর অবস্থান চীনে । ১৬১৪ ফুট লম্বা এই ভবনটির নির্মাণ কাজ ১৯৯৭ সালের ৭ই আগষ্ট শুরু হয় । কাজ সমাপ্ত হয় বেশ কয়েক বছর পর ২০০৮ সালে । ভবন নির্মাণের আদ্যোপান্ত দেখে নিই এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ৭ই আগষ্ট ১৯৯৭ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ২০০৮ সালে ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ২৮ আগষ্ট ২০০৮ সালে ।
সর্বমোট ব্যয় – ১.২০ বিলিয়ন ডলার ।
উচ্চতা – ১৬১৪ ফুট ।
মালিকানা – Shanghai World Financial Center Co. Ltd.
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১০১টি ( ৩টি নিচে )
আয়তন – ৪,১০৭,৫০০ বর্গফুট ।
লিফটের সখ্যা – ৯১টি
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – Kohn Pedersen Fox , Mori Building Co. ।



০৯..তালিকায় নবম স্থান অর্জন করে নেয়া সর্বোচ্চ টাওয়ারটির নাম তাইপেই । তাইপেই এর নির্মাণের আদ্যোপান্ত দেখে নেই এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ১৯৯৯ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ২০০৪ সালে ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ৩১ ডিসেম্বর ২০০৪ সালে ।
সর্বমোট ব্যয় – ১.৯৩ বিলিয়ন ডলার ।
উচ্চতা – ১৬৭১ ফুট ।
মালিকানা – Taipei Financial Center Corporation ।
ব্যবস্থাপনায় আছে – Urban Retail Properties ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১০১টি
আয়তন – ৪,৪৪০,১০০ বর্গফুট ।
লিফটের সখ্যা – ৬১টি
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – C.Y. Lee & Partners ।
অফিসিয়াল ওয়েবসাইট – www.taipei-101.com.tw
২০০৪ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত সময়কালে তাইপেইকে বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা ভবন হিসেবে বিবেচনা করা হতো ।



০৮… অষ্টম স্থান অর্জন করে নেয়া China Zun এর নির্মাণ কাজ এখনো শেষ হয় নি । তবে প্রকল্পটি আনুমানিকভাবে ২০১৯ সালের শেষদিকে সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে । বেইজিং এর এই ভবনটিকে শুধু এশিয়ার মধ্যে নবম বৃহত্তম ভবন হিসেবে বিবেচনা করা হয় । চলুন দেখে নিই এই ভবনটির নির্মাণের আদ্যোপান্ত এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১১ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ২০১৯ সালে ( আনুমানিক )।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় –
সর্বমোট ব্যয় – ১.৯৩ বিলিয়ন ডলার ।
উচ্চতা – ১৭৩২ ফুট ।
অবস্থান – Z15 plot, Guanghua Road, Beijing ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১০৮টি
আয়তন – ৪,৬০০,০০০ বর্গফুট ।
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – TFP Farrells (Land Bid Concept); KPF (Concept & Design);



০৭.. তালিকায় সপ্তম স্থান অর্জন করে নেয়া (“Guangzhou CTF Finance Center
“) সর্বোচ্চ এই ভবনটিও চীনে অবস্থিত । অন্যান্য ভবনগুলোর নির্মাণের সময়কালের কথা বিবেচনা করলে এটির নির্মাণ কাজ মোটামুটি অল্প সময়েই শেষ হয় । ২০০৯ সালের শেষের দিকে শুরু হয়ে ২০১৬ সালের শেষের দিকে এর নির্মাণ কাজ শেষ করা হয় । এশিয়ার সর্বোচ্চ ভবনের তালিকায়ও এটি আছে সপ্তম স্থানে । সপ্তম স্থানের এই সর্বোচ্চ ভবনটির নির্মাণ কাজের আদ্যোপান্ত দেখে নিই এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ২৯ সেপ্টেম্বর ২০০৯ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ২০১৬ সালে ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ২০১৬ সালে ।
উচ্চতা – ১৭৩৯ ফুট ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১১৬ টি
আয়তন – ৫,৪৬৪,৬৩৩ বর্গফুট ।
লিফটের সখ্যা – ৯৫টি
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – Kohn Pedersen Fox; ।
ডেভেলপিং কাজে ছিলেন – New World Development ।



০৬.. ওয়ান ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারটি বিশ্বের সর্বোচ্চ ভবনগুলোর মধ্যে বর্তমানে আছে ষষ্ট স্থানে । আমেরিকার নিউইয়র্ক সিটিতে অবস্থিত এই ভবনটির নির্মাণ কাজ শেষ হতে সময় লেগেছে প্রায় ৭ বছরের মত । চলুন এক নজরে দেখে নিই ভবনটির নির্মাণ কাজের আদ্যোপান্ত –
নির্মাণ শুরু – ২৭শে এপ্রিল ২০০৬ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ২০১৪ সালে ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ৩ নভেম্বর ২০১৪ সালে ।
উচ্চতা – ১৭৭৬ ফুট ।
নির্মাণ ব্যয় – ৩.৯ বিলিয়ন ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ৯৯ টি ।
আয়তন – ৩,৫০১,২৭৪ বর্গফুট ।
লিফটের সখ্যা – ৭৩ টি
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – David Childsb, Daniel Libeskind , Hill International, The Louis Berger Group ।
ডেভেলপিং কাজে ছিলেন – Port Authority of New York and New Jersey ।



০৫.. পঞ্চম স্থানে থাকা এই ভবনটিতে রয়েছে হোটেল, অফিস থেকে শুরু করে থাকার সুব্যবস্থা । সুউচ্চ এই ভবনটির অবস্থান দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে । মাত্র ৫ বছরেই সম্পন্ন করা হয় এই ভবনটির নির্মাণ কাজ । চলুন থাকলে দেখে নেই ভবনটির নির্মাণ কাজের আদ্যোপান্ত এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ১ই ফেব্রুয়ারী ২০১১ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ২২শে ডিসেম্বর ২০১৬ সালে ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ৩ই এপ্রিল ২০১৭ সালে ।
উচ্চতা – ১৮২৩ ফুট ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১২৯ টি
আয়তন – ৩,২৭৩,১০০ বর্গফুট ।
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – Kohn Pedersen Fox ।
ডেভেলপিং কাজে ছিলেন – Lotte Engineering & Construction ।
অফিসিয়াল ওয়েবসাইট – www.lwt.co.kr




০৪.. তালিকায় চতুর্থ স্থানে থাকা এই সুউচ্চ ভবনটিও চীনের আওতায় । ভবনটির অবস্থান চীনের শেনঝেনে । প্রায় ৭ বছর সময় ব্যয় করে এই ভবনটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হয় । চলুন দেখে নিই ভবনটি নির্মাণের আদ্যোপান্ত এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ২০১০ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ২০১৭ সালে ।
নির্মাণ ব্যয় – ১.৫ বিলিয়ন ।
ভবনটির মালিকানা – Ping An Life Insurance Company of China ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ২০১৭ সালে ।
উচ্চতা – ১৯৬৫ ফুট ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১১৬ টি
আয়তন – ৪,১৫৩,৯৯০ বর্গফুট ।
লিফটের সংখ্যা – ৮০ টি ।
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – Kohn Pedersen Fox Associates ।
ডেভেলপিং কাজে ছিলেন – Ping An Life Insurance Company of China ।



০৩.. তালিকায় ৩য় অবস্থানে থাকা Makkah Royal Clock Tower এর অবস্থান সৌদি আরবে ।তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকলেও এর নির্মাণ খরচ এর দিক দিয়ে এটি ছাড়িয়ে গেছে অন্য সকল স্থাপনাগুলোকে । প্রায় ১৫ বিলিয়ন এর মতো খরচ হয় এটি নির্মাণ করতে। চলুন দেখে নিই ভবনটি নির্মাণের আদ্যোপান্ত এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ২০০৪ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ২০১১ সালে ।
নির্মাণ ব্যয় – ১৫ বিলিয়ন ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ২০১১ সালে ।
উচ্চতা – ১৯৭২ ফুট ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১২৪ টি
ফ্লোরের আয়তন – ৩,৩৪৩,৬৮০ বর্গফুট ।
লিফটের সংখ্যা – ৯৬ টি ।
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – SL Rasch GmbH and Dar Al-Handasah Architects ।



০২.. সাংহাই টাওয়ার, বিশ্বের সুউচ্চ ভবনের তালিকায় বর্ত্মানে ২য় স্থানে আছে এটি । বিশ্বের সুউচ্চ ভবনগুলোর মধ্যে একমাত্র সাংহাই ভবনের রয়েছে সবচেয়ে বেশি পর্যবেক্ষণ ডেক । বিশ্বের ২য় দ্রুতগতি সম্পন্ন লিফট এর ব্যবস্থাও রয়েছে এই টাওয়ারে । চলুন দেখে নিই ভবনটি নির্মাণের আদ্যোপান্ত এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ২৯শে নভেম্বর ২০০৮ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৪ সালে ।
নির্মাণ ব্যয় – ১৫.৭ বিলিয়ন ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ২০১৪ সালে ।
ভবনটির মালিকানা – Shanghai Tower Construction and Development ।
উচ্চতা – ২০৭৩ ফুট ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১৩৩ টি
ফ্লোরের আয়তন – ৪,০৯২,১০০ বর্গফুট ।
লিফটের সংখ্যা – ১০৬ টি ।
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – Jun Xia (Gensler) TJAD ।



০১… বিশ্বসেরা সুউচ্চ ভবনের তালিকায় রয়েছে দুবাইয়ের Burj Khalifa । মাত্র ৫ বছরেই এই সুউচ্চ ভবনটির নির্মাণ কাজ শেষ করা হয় । ২০০৯ সালে এর নির্মাণ কাজ শেষ হবার পর থেকে এখন অবধি এটি বিশ্বের সুউচ্চ ভবনের তালিকায় প্রথম স্থানে আছে । চলুন দেখে নিই ভবনটি নির্মাণের আদ্যোপান্ত এক নজরে –
নির্মাণ শুরু – ৬ই জানুয়ারী ২০০৪ সালে ।
নির্মাণ সম্পন্ন হয় – ১ অক্টোবর ২০০৯ সালে ।
সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় – ৪ জানুয়ারী ২০১০ সালে ।
নির্মাণ ব্যয় – ১.৫ বিলিয়ন ।
ভবনটির মালিকানা – Emaar Properties Height ।
উচ্চতা – ২৭২২ ফুট ।
মোট ফ্লোর সংখ্যা – ১৬৩ টি ।
ফ্লোরের আয়তন – ৩,৩৩১,১০০ বর্গফুট ।
লিফটের সংখ্যা – ৫৭ টি ।
ডিজাইন এবং কন্সট্রাকশন – Adrian Smith, Skidmore, Owings & Merrill ।
অফিসিয়াল ওয়েবসাইট – www.burjkhalifa.ae ।



I am a zero starter. Nothing to say right now, just wait and see. i will come like a thunder.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top